এফিলিয়েট প্রোগ্রাম এবং অনলাইনে আয় | Affilation Marketting and Online Income

সহজকথায় এফিলিয়েট প্রোগ্রাম হচ্ছে অন্য কোন কোম্পানী হয়ে প্রচার করা। যেমনঅনলাইনে সবচেয়ে বড় বিক্রেতা আমাজন। তাদের সদস্য হলে তারা  যাকিছু বিক্রি করে সেগুলি আপনার সাইটে রাখার ব্যবস্থা করবেন। আপনার কাজ এটুকুই। ভিজিটরযখন সেই লিংকে ক্লিক করে পন্য কিনবেন তখন আপনার নামে বিক্রির কমিশন জমা হবে।

 

বাস্তবে এফিলিয়েশন বিভিন্ন ধরনের হয়। যেমন আমাজন কিংবা বেষ্টবাই এর ক্ষেত্রে তাদেরপন্য বিক্রি হলে কমিশন পাবেন, বিক্রি না হওয়া পর্যন্ত আপনি টাকা পাবেন না।পে-পার-সেল নামে পরিচিত এই পদ্ধতি।

ইন্টারনেটে আয়ের কথা যখন বলা হয় তখন সবচেয়ে বেশি প্রচার পায় এডসেন্স কিংবা পিটিসি।দুটি সম্পর্কেই বলা হয় আপনাকে কিছু করতে হবে না। প্রথমটিতে ভিজিটর আপনার সাইটে এসে ক্লিক করলে আপনি টাকা পাবেন, পরেরটি আপনি যত ক্লিক করবেন তত টাকাপাবেন। এধরনের প্রচারনোর মধ্যে এফিলিয়েট প্রোগ্রাম বিষয়টি অনেকের দৃষ্টিরআড়ালে থেকে যায়। অথচ এটাই স্বীকৃত, এরচেয়ে বেশি আয় অন্যভাবে করা যায় না।

সহজকথায়, এফিলিয়েট প্রোগ্রাম হচ্ছে আপনার ব্লগে বা ওয়েবসাইটে নির্দিস্ট কারো বিজ্ঞাপন রাখা। প্রচারনা অথবা বিক্রির জন্য। কখনো কখনো সেখানে ভিজিটর ক্লিক করলেই আপনি অর্থ পান। তবে মুল আয়ের জন্য ভিজিটরকে কিছু কাজ করতে হয়। যেমনতাদের সাইটে গিয়ে ফরম পুরন করা কিংবা পন্য বা সেবা কেন। তখন আপনি সেইঅর্থের ভাগ পান।

কাজটি একেবারে সহজ মনে করার কারন নেই। প্রথমত আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট থাকতে হবে।সেখানে ভিজিটর আনার ব্যবস্থা করতে হবে, অর্থাত আপনার সাইটের প্রচারেরব্যবস্থা করতে হবে। এরপর আপনার সাইটের সাথে মিল রেখে কারো কোন প্রতিস্ঠানের এফিলিয়েশন নিতে হবে।

যারা এফিলিয়েটেড মার্কেটিং এর সুযোগ দেন তাদের প্রত্যেকের বিজ্ঞাপনের ব্যবস্থা থাকে। ব্যানার বিজ্ঞাপন, টেক্সট লিংক ইত্যাদি আপনার পছন্দমত ব্যবহার করতেপারেন। তাদের দেয়া কোড কপি করে আপনার সাইটে পেষ্ট করাই যথেষ্ট। এই সাইটেযেমন রয়েছে ফ্রিল্যান্সারের বিজ্ঞাপন।

আপনারযা লক্ষ্য রাখা প্রয়োজন তা হচ্ছে আপনার সাইটের সাথে মিল রেখে এফিলিয়েশননেয়া। শিক্ষা বিষয়ক সাইট হলে অনলাইন ইউনিভার্সিটির এফিলিয়েশন নিতে পারেন, একইভাবে অনলাইনে বিক্রির সুযোগ থাকলে নিতে পারেন আমাজন কিংবা ই-বে।

প্রায় সমস্ত এফিলিয়েট প্রোগ্রাম বিনামুল্যের। তাদের সাইটে গিয়ে নাম লেখানোই যথেষ্ট। অবশ্য এটাই ঠিক, একারনে এত বেশি সংখ্যক মানুষ এফিলিয়েশন নেয় যেবেশিরভাগ মানুষই সফল হয় না। শতকরা ৯৯ জনই এই দলে। শুনে হতাস হচ্ছেন কি!

Affilation Marketting and Online Incomeআপনিযদি নিজের সাইটে এলিলিয়েশন লিংক রেখে অর্থ পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করেন তাহলে হতাস হওয়া স্বাভাবিক। বাকি যে ১ ভাগ সফল হন, অনেকে ধনী হন, তারা ক্রমাগতনিজের সাইটের উন্নতি করেন, সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন করতে থাকেন, ভিজিটরবাড়ানোর জন্য নানারকম পদ্ধতি অবলম্বন করেন। যা করতে হয় না তা হচ্ছে যেখানথেকে আয় সেই এলিয়েশন নিয়ে মাথা ঘামাতে হয় না। ১০ হাজার ডলার থেকে লক্ষ ডলারআয়ের উদাহরন রয়েছে অনেক।

যদিএই পদ্ধতিতে আয় করতে চান কিংবা যদি আগেই শুরু করে সফলতা না পান তাহলেআপনার দেখার বিষয় সেটিই। আপনি যথেষ্ট সংখ্যক ভিজিটর পাচ্ছেন কি-না। না পাওয়ার কারন বিশ্লেষন করুন। সেদিকে গুরুত্ব দিয়ে সাইট উন্নত করা এবং প্রচারকরা দুটি কাজই করুন। সফলতা নিশ্চিত।

2 thoughts on “এফিলিয়েট প্রোগ্রাম এবং অনলাইনে আয়

Leave a Reply


SEO Powered By SEOPressor